বাংগালীর ভাগ || X
Added On : Thursday - April 07, 2016 - 11:39:17 AM [GMT +6:00]
ছোট বড় প্রতিটা ইস্যুতে বাংগালীর নিজেদের মধ্যে ভাগ হয়ে যাবার যে প্রবণতা, তা খোদ এমিবার মাইটোসিস কেও মনে হয় হার মানায়। এই যেমন :

- আওয়ামী লীগ নাকি বিএনপি
- ভারত ভাল, না খারাপ
- ফ্লাইওভার করা উচিত নাকি না
- মার্ভেল নাকি ডিসি
- তনু হত্যায় কি আর্মি জড়িত নাকি না
- শাহাবাগী নাকি না
- তেলের দাম কমানো উচিত নাকি না
- ইত্যাদি ইত্যাদি

এমন সব ইস্যুতে আমরা ভাগ হয়ে যাই যার দূরদূরান্তের সাথেও হয়ত আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই

শুধু কি তাই? নিজের ভাগের পক্ষ নিয়ে মারামারি হাতাহাতি করা তো কোনো ব্যাপারই না। যেমন শাহাবাগীরা ভাল না খারাপ এই নিয়ে ২ বন্ধুর তুমুল ঝগড়া, অত:পর হাতাহাতি, ঘুষাঘুষি তারপর মুখ দেখাদেখি বন্ধ।

শুধু এইটুকু হইলেও এক কথা, প্রতিটা ভাগ আবার আরও ছোট ছোট ভাগে ভাগ হতে থাকে। এই যেমন তনু কি হিজাবী ছিল নাকি না, যারা হিজাবী এর পক্ষে তাদের আবার ২ ভাগ - ভাল মেয়ে ছিল নাকি না ইত্যাদি ইত্যাদি

মজার ব্যাপার হল, যেখানে আমাদের কথা বলা বা হস্তক্ষেপ করা দরকার, সেখানে আমরা আকাশের দিকে তাকায় থাকি। যেমন রাস্তা দিয়ে যেতে যেতে দেখলেন একজন লোক একটা শিশু কে পেটাচ্ছে। না দেখার ভান করে হেটে চলে যাবেন। কিন্তু আগের দিনই কিন্তু উনি শাহাবাগী ইস্যুতে বন্ধু কে ঘুষি মেরে ২ টা দাত ফেলে দিয়েছেন - যদিও নিজে কোনদিন শাহাবাগে যান নি বা তার কেউ ওখানে নেই। কিন্তু আজকে তিনি একটা শিশু কে মার খেতে দেখেও হেটে চলে যাচ্ছেন।

কারন? কারন খুব সোজা!! এখানে তো কোন ভাগা ভাগি এর ব্যাপার ঘটে নি। একটু যদি কষ্ট করে কেউ কোনমতে একটা ভাগাভাগি এর ব্যাপার টেনে আনতে পারেন যে "শিশুটিকে মারা ঠিক নাকি না" তাহলেই দেখবেন ভীর জমে যাবে। ব্যাপারটা নিয়ে একটু আলোচনা করতে হবে, গা গরম করা ডায়লগ দিতে হবে, তারপর এক গ্রুপ লাফায়ে পরবে মারার জন্য, আরেক গ্রুপ লাফায়ে পরবে শিশুটিকে বাচাতে। বিচিত্র সেলুকাস!!! আরও বিচিত্র আমরা।

আমি জানি, আমার এই স্ট্যাটাস পড়ে আমার ফ্রেন্ড লিস্টেও সবাই ২ ভাগে ভাগ হবেন। কেউ কেউ তো মারতে না পেরে রাগে আমাকে ব্লক ডিলেট মারবেন। তারাই আবার কালকে কোন একটা রিমোট ইস্যুতে বুইজ্ঝা না বুইজ্ঝা উলটা পালটা পেইজ এর বেহুদা এনালাইসিস শেয়ার দিবেন - তারপর সেইটা নিয়া আরও ভাগাভাগি.......

যাউগগা, ব্যাপার না। মানুষ সিমেট্রিকাল, সবই ২ ভাগ, ভাগই সব, ভাগই আসল

This Site is Maintained and Developed by SM Faiz - 2012